সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মন খুলে দে,ও তুই হেলা করিস না, গোপালগঞ্জে যাবরে ভাই মোটরসাইকেল নিয়া ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে মান্নান হোসেন শাহীন সভাপতি, শেখ মোঃ জহিরুল ইসলাম অপু সাধারণ সম্পাদক ৩২ নং ওয়ার্ডে মোঃ বেলাল আহমেদ সভাপতি, মোঃ আবুল বাশার সাধারণ সম্পাদক ৩১ নং ওয়ার্ডে শহীদ আলী সভাপতি, সাজেদুল হক খান রনি সাধারণ সম্পাদক গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শিগগিরই আর একটি গণঅভ্যুত্থান হবে: আমান উল্লাহ আমান শৈলকূপ উপজেলার ১১ নং আবাইপুর ইউনিয়নের ঢাকায় অবস্থানকারী দের নিয়ে গঠিত হলো লিজেন্ড এগারো নামে একটি ক্লাব বধ্যভূমি, একটি বটগাছ ও একজন রবিউল প্রানি সম্পদ মন্ত্রনালয় ও ঢাকা সিটি কর্পোরেশন কোন পথে কোরবানির আয়োজনে ? বৃষ্টির দিনেও রান্না করা খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে রাজধানী মোহান্মদপুর ক্লাব সাধারণ সম্পাদক পদে সকলের পছন্দ হাফেজ মাওলানা মোঃ ইসমাইল হোসেন

৮ দিনে নাম জারি করার সিদ্ধান্ত গ্রহনে প্রধানমন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীকে অভিনন্দন : এম এ জলিল

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২০
  • ৯১ দেখা হয়েছে

খাস খবর বাংলাদেশ ডেস্কঃ জমি নিবন্ধনের ৮ দিনের মধ্যেই জমির নাম জারি করার জন্য উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)কে আদেশ প্রধান করায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও সরকারের ভূমি মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ জলিল।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিনন্দন জানান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের গরীব-দ:খি মানুষের জন্য ঋণসালিশী বোর্ড করেছিলেন শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক, স্বাধীন বাংলাদেশে ভূমি সংস্কারের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার ভূমিমন্ত্রী আবদুর রব ছেরনিয়াবাত আদেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু, জাতির র্দুভাগ্য সেই আদেশ আর বাস্তবায়িত হয় নাই। পরবর্তীতে ১৯৮৪ সালে এরশাদ সরকারের ভূমিমন্ত্রী এম এ হক ভূমি সংস্কারের কর্মসূচী গ্রহন করা শুরু করেন এবং জাল দলিল প্রথা বাতিল করার আইন প্রনয়ন করেছিলেন। ভূমি দসু্যদের প্রভাবের কারণে তিনি আর মন্ত্রী পরিষদে থাকতে পারেন নাই।

তিনি আরো বলেন, এর পর ভূমি সংস্কারের কর্মসূচী গ্রহন করেন ভূমি সচিব এম মোকাম্মেল হক ও ভূমি সংস্কার বোর্ডের সদস্য সিরাজউদ্দিন আহমেদ। যদিও তাদের সেই কর্মসূচী আর বাস্তবায়িত হয় নাই। তাদের সেই ভূমি সংস্কারের সুপারিশ মালাও কোন সরকার বাস্তবায়িত করেন নাই। অনেক দেরীতে হলেও বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কণ্যা শেখ হাসিনা ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী নামজারির বিষয়ে একটি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহনের মধ্য দিয়ে ভূমি সংস্কারের প্রাথমিক পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন বলে দেশবাসী বিশ্বাস করে।

এম এ জলিল ভূমি সংস্কারের জন্য ভূমি নিবন্ধন, নামজারি ও খাজনা এক ছাতার নিচে আনা, কোন প্রকার ধারকরা জনবল নয়-ভূমি মন্ত্রনালয়ের নিজস্ব জনবল তৈরী করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এসকল বিষয়ে করতে পারলে রাষ্ট্র দেশের উন্নয়নে ভূমিকে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারবে এবং সরকারের রাজস্বও বৃদ্ধি পাবে।

একই সাথে তিনি ভূমি কমিশন গঠনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই সকল কাজ সম্পন্ন করতে পারলে দেশ-জনগন ও রাষ্ট্র অনেক বেশী উপকৃত হবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি।

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102