বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ঝিনাইদহে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্ছিত ও বেঁধে রাখার হুমকি।। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে নিন্দা জানিয়ে অসংখ্য সাংবাদিক। কোরবানীর কাঁচা চামড়ার মুল্য নির্ধারণ, বানিজ্য মন্ত্রনালয়কে নিয়ে চলছে রং তামাশা শিক্ষক হত্যা ও জুতার মালা এখন বাঙালি জাতিকে বহন করতে হচ্ছে পদ্মা সেতু হয়ে টুঙ্গিপাড়া গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা শ্রদ্ধা মন খুলে দে,ও তুই হেলা করিস না, গোপালগঞ্জে যাবরে ভাই মোটরসাইকেল নিয়া ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে মান্নান হোসেন শাহীন সভাপতি, শেখ মোঃ জহিরুল ইসলাম অপু সাধারণ সম্পাদক ৩২ নং ওয়ার্ডে মোঃ বেলাল আহমেদ সভাপতি, মোঃ আবুল বাশার সাধারণ সম্পাদক ৩১ নং ওয়ার্ডে শহীদ আলী সভাপতি, সাজেদুল হক খান রনি সাধারণ সম্পাদক গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শিগগিরই আর একটি গণঅভ্যুত্থান হবে: আমান উল্লাহ আমান

৫২ নং ওয়ার্ড আ.লীগের ত্রি-সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় সাজেদুল ইসলাম

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৯ জুন, ২০২২
  • ২৬৭ দেখা হয়েছে

মোঃ ইব্রাহিম হোসেনঃ ঢাকা মহানগর উত্তর তুরাগ থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে তুরাগ থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করছে। আগামী ২৪ জুলাই ২০২২ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে তুরাগ থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলন।

ইতিমধ্যে নেতাকর্মীরাও উজ্জীবিত হয়ে উঠছেন নানামূখি তৎপরতায়। আর সম্মেলনে পদপ্রত্যাশী নেতৃবৃন্দ ব্যাপক দৌড়ঝাপ চালাচ্ছেন কেন্দ্রীয় নেতাদের দ্বারে।

৫২ নং ওয়ার্ডে শীর্ষ দুটি পদে প্রধানমন্ত্রীর মনোনীতদেরই ঠাই হবে। এজন্য শেষ মুহুর্তে এসে তারা প্রধানমন্ত্রীর গুডবুকে নাম লেখাতে উদগ্রীব।

তুরাগ থানার ৫২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে শোনা যাচ্ছে অনেক পদপ্রত্যাশীর নাম। তবে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ সদস্যরা তুরাগ থানা কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাজেদুল ইসলাম কে ৫২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চান। সাজেদুল ইসলাম কে পছন্দ করার কারণ তিনি তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে এ পর্যন্ত এসেছেন।

সরেজমিনে গিয়ে খোজ নিয়ে জানা যায়, সাজেদুল ইসলাম প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তুরাগ থানা কৃষক লীগ, সভাপতি সেচ্ছায় রক্তদান বাউনিয়া বটতলা, সাধারন সম্পাদক- বঙ্গবন্ধু পাঠাগার ভাদালদি, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক -মাদবরবাড়ি বাইতুর রশিদ জামে মসজিদ বাউনিয়া, সাবেক আহবায়ক – তুরাগ থানা কৃষক লীগ, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বাউনিয়া একতা কল্যাণ সমিতি, সাবেক আওয়ামী যুবলীগ কর্মি-হরিঃইউ+তুরাগ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক – আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগ ৮ নং ওয়ার্ড হরিঃ ইউঃ।

সাজেদুল ইসলাম এর সততা ও নৈতিকতার দৃষ্টান্ত তুরাগ থানার সর্বস্তরের জনগণ গর্ব করে। ১৯৯০ সালে স্বৈরাচার এরশাদ সরকার পতনের রাজপথে আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ, ১৯৯৪-১৯৯৬ মার্চ পর্যন্ত স্বৈরাচারীনী খালেদা জিয়ার পতনের লক্ষ্যে হরতাল, অবরোধ, ঘেরাও কর্মসূচী, অসহযোগ আন্দোলনে রাজপথে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।

স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে আরো জানা গেছে, তুরাগ থানার ৫২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সাধারণ সম্পাদক পদে সাজেদুল ইসলাম এর কোনো বিকল্প নাই, আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দেবার মতো পারিবারিক ঐতিহ্য, সামাজিক পরিচিতি, আর্থিক স্বচ্ছলতা, রাজনৈতিক দূরদর্শীতা, আদর্শিক-পরীক্ষিত নেতৃত্ব, পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজ ও গ্রহণ যোগ্যতা ইত্যাদি যেসব গুণের প্রয়োজন তার সবগুলো সাজেদুল ইসলাম এর মধ্যে বিদ্যামান রয়েছে।

সাজেদুল ইসলাম বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যার জন্ম না হলে স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের জন্ম হত না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তিনি একমাত্র আমার রাজনৈতিক আদর্শ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সমুন্নত রেখে দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যায়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ছায়াতলে থেকে কাজ করতে চাই । ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন এবং পরবর্তী সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অংশগ্রহণ সহ ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন ক্ষুদ্র কর্মী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছি।

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102