May 19, 2024, 6:38 pm
শিরোনামঃ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা বিচার ব্যবস্তার সুচনার ইতিহাস জানিনা, বিতর্কের শেষ কোথায় ? বুঝতে পারছি না বঙ্গ কণ্যার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলার মাটি কে বুকে ধারন, ইতিহাসের অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি পাঠাগারের কমিটি গঠন জহির সভাপতি ও লিটন সাধারণ সম্পাদক গাজায় নিজেদের গোলার আঘাতে পাঁচ ইসরায়েলি সেনা নিহত তালের শাঁস খেলে যেসব উপকার হয় ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ওবায়দুল কাদের বিশ্বাস পুনর্নির্মাণের জন্য আমি বাংলাদেশ সফর করছি: ডোনাল্ড লু ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই গুলিস্তান-মিরপুরের কাপড় পাকিস্তানের বলে বিক্রি করেন তনি!

৩ নং ভাদুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় শীর্ষে মোহাম্মদ জাবেদ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Wednesday, September 8, 2021
  • 1874 Time View

মোঃ ইব্রাহিম হোসেনঃ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের এখনও তফসিল ঘোষণা হয়নি। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নির্বাচনের আগাম প্রস্তুতি। লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার ৩ নং ভাদুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান ও নির্যাতিত নেতা, কর্মীবান্ধব গরীব-দুঃখী, খেটে খাওয়া মানুষের আশার প্রদীপ, তারুণ্যের অহংকার সৎ, সাহসী ও নির্ভীক, সদালপী, সাধারণ মানুষের আস্থার বাতিঘর, বিশিষ্ট সমাজ সেবক, মোহাম্মদ জাবেদ কে সাধারণ ভোটাররা চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করতে চায় ৩ নং ভাদুর ইউনিয়নবাসী। সে লক্ষে তার পক্ষে একট্রা সর্বস্তরের জনগণ।

তিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় ভোটারদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। সরেজমিনে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়, মোহাম্মদ জাবেদ এলাকার বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি মানুষের পাশে থেকে তাদের সুখ-দুঃখ খোঁজ খবর নেন। তিনি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সাথে মতবিনিময় এবং প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। এই পর্যন্ত আওয়ামী লীগের প্রচার-প্রচারণায় যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তাদের মধ্যে মোহাম্মদ জাবেদ এর নাম আলোচনায় শীর্ষে।

এই ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে ক্লিন ইমেজ আর নীতিবান ব্যক্তি হিসেবেও ইউনিয়ন তার বিকল্প কেউ নেই। সাধারণ ভোটাররা মনে করেন তিনি প্রার্থী হিসেবে মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে। প্রচার-প্রচারণা এবং মতবিনিময়ে তিনি দিনরাত ইউনিয়নের এ প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে দৌড়াচ্ছেন। এলাকার সাধারণ মানুষ কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন মোহাম্মদ জাবেদ একজন সৎ দায়িত্বশীল নিষ্ঠাবান ও কর্তব্য পরায়ন ব্যক্তি। রাজনৈতিক মহলে একজন সৎ, সু-দক্ষ রাজনীতিবিদ হিসেবে সুখ্যাতী রয়েছে তার। বর্তমান তিনি আওয়ামী লীগ যুবলীগ রামগঞ্জ উপজেলার সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করছে।

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে সংগঠক বিরোধী কিংবা গঠনতন্ত্র পরিপন্থি কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িতের কোন অভিযোগ নেই। তার নীতি আদর্শের কারণে তাকে ৩ নং ভাদুর ইউনিয়নবাসী তাকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।

চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় ব্যাপারে জানতে চাইলে মোহাম্মদ জাবেদ, খাস খবর বাংলাদেশ পত্রিকাকে বলেন, আমি পারিবারিক ভাবে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান।সেই সুবাদে নিজের সূচনা লগ্ন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। স্কুল জীবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হইয়া এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে প্রেরণ পাইয়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতির মধ্য দিয়ে নিজের রাজনৈতিক জীবন শুরু করি। আমি আমার রাজনৈতিক জীবনে ১৯৯৯ ইং সালে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলাধীন ৩নং ভাদুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি, ২০০০ সালে রামগঞ্জ সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি, ২০২১ সালে উপজেলা ছাত্রলীগ, রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুরের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক এবং ২০১০ সালে উপজেলা যুবলীগ, রামগঞ্জ লক্ষ্মীপুর এর সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করি। আমার উপর নেতাকর্মী ও দলের অর্পিত দায়িত্ব দেশ ও দলের স্বার্থে নিষ্ঠার সহিত পালন করি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সংসদের বিরোধী দল হিসেবে থাকা কালে আমি ও আমার পরিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সরাসরি জড়িত থাকার কারণে নানাভাবে হয়রানি, আর্থিক ভাবে ক্ষতি, সরকার দলীয় নেতাকর্মীর আক্রমন, ঘর-বাড়ি ভাংচুরসহ ১২টি মিথ্যা রাজনৈতিক মামলার আসামি হইয়া জেল হাজতে দুর্বিসহ দিনাতিপাত করিয়াছি এবং ১/১১ সেনাবাহিনী কর্তৃক আমি এবং আমার বৃদ্ধ পিতাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। আমার বৃদ্ধ পিতাও শুধুমাত্র রাজনীতির কারণে হয়রানি সহ মিথ্যা মামলার আসামি হইয়া ৫ বার জেল হাজতে যেতে হয়েছে।

মোহাম্মদ জাবেদ আরো বলেন, মানুষের আস্থা অর্জন করায় আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান সাধারণ মানুষ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ত্যাগী, শিক্ষিত ও পরিচ্ছন্ন তরুণ নেতৃত্বকে অগ্রাধিকার দিচ্ছেন, সেক্ষেত্রে আমি আশাবাদী দল আমাকে মনোনয়ন দিবেন এবং আমি বিজয়ী হব আশা করছি। ইউনিয়নে মাদকমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত, জনবান্ধব করার পাশাপাশি একটি ডিজিটাল ইউনিয়ন তৈরি করার পক্ষে কাজ করব ইনশাল্লাহ।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102