July 17, 2024, 7:44 pm
শিরোনামঃ
অহেতুক কতগুলো মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফুফুর বাড়ি বেড়াতে এসে নদীতে ডুবে সিয়াম নামে এক যুবকের মৃত্যু গায়েবানা জানাজার পরই পল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি-সমমনা দলের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক দল রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কোটা আন্দোলনকে ব্যবহার করছে: ডিবিপ্রধান হারুন-অর-রশিদ ছারছীনা দরবার শরীফের পীর সাহেবের ইন্তেকাল পবিত্র আশুরা সমগ্র মুসলিম উম্মা’র জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিনঃ: মোঃ সাদেক খান রাজবাড়ীর পাংশায় সাংবাদকর্মীদের সঙ্গে মত বিনিময় সভা করলেন নবাগত উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তার করে গণতন্ত্রকেই বন্দী করা হয়েছিলঃ মোঃ সাদেক খান কোটা প্রথা বা পদ্ধতি বিশ্বে নতুন নাঃ আঃ রহমান শাহ্

সাইদুল করিম মিন্টু মুক্তির দাবিতে কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ মানববন্ধন

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Thursday, July 4, 2024
  • 10 Time View

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ এবার ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার করে অবিলম্বে ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুর ১২টায় শহরের হক চিড়ের মিল এলাকা থেকে আওয়ামী লীগের একাংশের মিছিলটি বের হয়ে বাসস্ট্যান্ড ঘুরে কোটচাঁদপুর রোডে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।

পাশে অনুষ্ঠিত হওয়া সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালনের প্রস্তুতিমূলক সভাস্থলে তারা। সেখানে উপস্থিত নেতাকর্মীরা সাইদুল করিম মিন্টু নিঃশর্ত মুক্তি চান।

সভা পরবর্তী ব্যানার নিয়ে মহাসড়কে অবস্থান করতে দেখা যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব হোসেন খান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসরাইল হোসেন, সাবেক মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু, কাউন্সিলর রাশেদুল হক রিগান, শ্রমিক লীগ নেতা মুশফিকুর রহমান ডাবলু, কালীগঞ্জ পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ লাভলুসহ অনেকে।

সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যাকাণ্ডের পর ঝিনাইদহ-৪ সংসদীয় আসনে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা হত্যাকারীদের সুষ্ঠু বিচার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ করতে দেখা গেলেও বৃহস্পতিবার প্রথম প্রকাশ্যে ব্যানার নিয়ে এমপি আনার হত্যাকাণ্ডে জেলে থাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজপথের নামলেন উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগের পদধারী অনেক নেতা।

দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা আওয়ামী লীগ দুই গ্রুপে বিভক্ত। একটি গ্রুপে সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার এবং আরেকটি গ্রুপে সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম আব্দুল মান্নানের অনুসারীরা নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন। সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান গ্রুপের নেতাকর্মীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের অনুসারী ছিলেন। সর্বশেষ ঘোষিত উপজেলা আওয়ামী লীগের ১০ সদস্য কমিটির প্রায় সবাই জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুর অনুসারী। এমপি হত্যার বিচার চেয়ে বাসস্ট্যান্ডে প্রথম মানববন্ধনে দেখা যায় সাবেক মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতিকে।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102