April 18, 2024, 11:47 am
শিরোনামঃ
শুধু প্রশাসন দিয়ে মাদক ও কিশোর গাং প্রতিরোধ করা সম্ভব নয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হলে ? গুচ্ছভুক্ত ২৪ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা ভন্ড কবিরাজ বলেন তিনমাথা,জ্বীন দিয়ে ও গোখরা সাপের কামড় দিয়ে শেষ করে দিব জানা গেল কোরবানি ঈদের সম্ভাব্য তারিখ বাংলা ও বাঙ্গালীর নববর্ষঃ আঃ রহমান শাহ ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন কৃষক লীগ নেতা মোঃ হালিম খান পদ্মা সেতুতে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড জাহাজেই ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করলেন জিম্মি নাবিকরা পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছে আলহাজ্ব লায়ন মোঃ দেলোয়ার হোসেন

সরকারী প্রকল্পের বিরোধী সমালোচনাঃ আঃ রহমান শাহ্

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Wednesday, October 11, 2023
  • 1503 Time View

আঃ রহমান শাহ্ঃ আমার ছোটো মামা বিদ্যুতের ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। তিনি কাপ্তাই গ্রীড, মদুনাঘাট, ছিদ্দিরগঞ্জের গ্রীড ষ্টেশনে কাজ করেছেন, বেশ কয়েকটা বড়ো সাব ষ্টেশন ইনস্টলেশন, ইরেকশনে বিদেশী এক্সপার্টের সাথে কাজ করেছেন প্রশিক্ষন নিয়েছেন, পরিচালনা করেছেন। তখন বিএনপি ক্ষমতায় দেশে বিদ্যুতের খুব লোড শেডিং ছিলো। তাকে একবার জিজ্ঞেস করেছিলাম এত লোড শিডং এর কারন কি, তিনি বলেছিলেন লাইন ও ট্রান্সফরমার গুলো পুরাতন এতে লোড নিতে পারে না, প্রায়ই নষ্ট হয়ে যায়, কাপ্তাই লেক খনন দরকার, নতুন ট্রান্সফরমার দরকার, আরো পাওয়ার ষ্টেশন ও নতুন সাব ষ্টেশন, নতুন লাইন বসালে মানুষ নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত পাবে।
রাস্তায় যে ট্রান্সফরমার গুলো স্থাপন করা হয় সে গুলোর এখন প্রকৃত মূল্য কত? উত্তরে সে বললো ২.৫০ লক্ষ টাকা। তবে আমদানি, কাষ্টম ক্লিয়ারিং, বিভিন্ন স্টোরে পৌছানো, স্থাপন, ও উর্ধতন বস দের কমিশন, ডলারের মূল্যবৃদ্ধি, মানি ইনফ্লেশনকে মাথায় রেখে ৭.৫০ লক্ষ টাকায় ৫০০০ ট্রান্সফরমার আমদানি করা হবে তখন কিছুটা সামাল দেয়া যাবে। দীর্ঘদিন সরকারী চাকুরী করে দেখেছি সরকারী পারচেজের এটিই নিয়ম।
তদুপরি কান্ট্রি অব অরিজিন, লংজিভিটি, গ্যারান্টি, অরান্টি অনুযায়ী দাম ভেরি করে। যেমন আপনি যদি এই যন্ত্রপাতি, টেকনোলজি ও প্রকৌশলি ব্যাবহার করে এখন আর একটা পদ্মা সেতু করেন তবে খরচ কম হবে।
দুরজনেরা, সমালচকরা, কিছু বিরোধী রাজনীতিকরা গুজরাটের রাশিয়ার পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সাথে তুলনা করে বলে বাংলাদেশে খরচ অনেক বেশী হয়েছে। তাতো হতেই পারে বাংলাদেশ এ কাজে প্রথম, তাদের ব্যাপক প্রশিক্ষন, রক্ষনাবেক্ষন, ব্যাবস্থাপনা, দীর্ঘ কনসালট্যান্ট খরচ মিলিয়ে খরচ বেশী হবে যা ভারতের দরকার হয় না, তদুপরি ভারতের নিজস্ব এক্সপার্ট আছে। তারপর লোকালয় থেকে কত কাছে বা দুরে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা সামগ্রী আংশিক দেশে প্রস্তুত করতে পারলে, সাগর বা সমুদ্র বন্দর সন্নিকটে হলে খরচ কমে। তার পর বালিশ কান্ডত আছেই। কিছু লোক সমালোচনার জন্য সমালোচনা করে। সেই পদ্মা সেতুর বিরোধী দলীয় জোরা তালির মত। মূল বিষয়টা হলো বিদ্যুতে বহুমাত্রিকি করন, যেমন জল বিদ্যুত, ডিজেল অকটেন ভিত্তিক, কয়লা ভিত্তিক, গ্যাস ভিত্তিক, সোলার ও বায়ূ ভিত্তিক করন যাতে সকল অবস্থায় সব সময় উৎপাদন ও সরবরাহ অব্যাহত রাখা যায়। যারা বশী সমালোচনা করে তারা একটা প্লান্ট তৈরী করতে পারে না, তাহলে সমালোচনা করে আর কি লাভ। আমরা কি এখন খোলাফায় রাশেদিনোর যুগে আছি? অসৎ লোক হিসেবে আমাদের বিশ্বব্যাপি পরিচিতি আছে। নৌকা চরলে পানি সেচ করতে হয়, আবার বর্ষার পানি, নদীর পানি, তুফান সব কিছু বিবেচনা করতে হয়। যারা কোনোদিন নৌকায় চরে নাই, ঝরে পরে নাই, সাতার কেটে কুলে উঠতে পারে না তারাই এখন সব জান্তা।

লেখকঃ রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের চলতি দায়িত্ব প্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক আঃ রহমান শাহ্।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102