শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৫:৩০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
শৈলকূপ উপজেলার ১১ নং আবাইপুর ইউনিয়নের ঢাকায় অবস্থানকারী দের নিয়ে গঠিত হলো লিজেন্ড এগারো নামে একটি ক্লাব বধ্যভূমি, একটি বটগাছ ও একজন রবিউল প্রানি সম্পদ মন্ত্রনালয় ও ঢাকা সিটি কর্পোরেশন কোন পথে কোরবানির আয়োজনে ? বৃষ্টির দিনেও রান্না করা খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে রাজধানী মোহান্মদপুর ক্লাব সাধারণ সম্পাদক পদে সকলের পছন্দ হাফেজ মাওলানা মোঃ ইসমাইল হোসেন মানি ইজ নো প্রবল্যামের রাজনীতির জনক জিয়া, বঙ্গবন্ধু ছিলেন রাজনৈতিক কৃপণতার জনক অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে কারিগরি শিক্ষা: শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল ইভিএম পেশীশক্তিকে প্রতিরোধে সহায়ক, দিনের ভোট দিনের জন্য মুলমন্ত্র ৩৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় শেখ মোঃ জহিরুল ইসলাম অপু বিনামূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা এবং ঔষধ বিতরণের ব্যবস্হা করেছে বাংলাদেশ ডেন্টাল হেলথ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটির

রোহিঙ্গা নিয়ে চীন-ভারত খেলছে,শেখ হাসিনা মানবতা দেখাচ্ছেন বিশ্বকে, ভাসান চরে পুর্ণবাসনের মাধ্যমে

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০
  • ১১৩ দেখা হয়েছে

জনাব রবিউল আলমঃ আমি একজন মানুষ, ধর্ম বর্ণ,জাতপাত নিন্যয় হবে পরে। বাঁচার জন্যে আকুলতা থেকে, বাচানোর জন্য ব্যাকুলতা দেখেছে বিশ্ববাসী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

রোহিঙ্গা গনহত্যার অমানবিক কর্মকাণ্ডের জন্য অংসান সুচিকে আজ গন আদালতে হাজির হতে হয়, বিশ্বের একাধিক স্বীকৃতি পুরুস্কার তুলে নিতে হচ্ছে সুচির কাছ থেকে।লজ্জিত হচ্ছে বিশ্ব নেতৃত্ব অপাত্রে কণ্যাদান করার জন্য। বাঙালির মন বলে কথা, রোহিঙ্গা গনহত্যা আমাদেরকে ৭১ পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর নিষ্ঠুরতার কথা বার বার মনে করিয়ে দিয়েছে।

মানুষকে বাঁচানোর জন্য মিসেস ইন্দিরা গান্ধী কথা, বাঁচার জন্য মানুষের ব্যাকুলতার কথা, সহায়সম্বলহীন মানুষগুলো জীবন নিয়ে কিভাবে ভারতের আশ্রয় ক্যাম্পে হাজির হয়েছিলো। বিকল্প দৃশ্য দেখতে হলো অংসান সুচির রোহিঙ্গা নিধনে । ইয়াহিয়ার প্রেআত্নার আমরা লহ্ম করলাম সুচির ভিতরে, মিসেস ইন্দিরা গান্ধীকে খুজে পেলাম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাঝে।

শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের জীবন রহ্মা ও আশ্রয় দিয়েই নিজের দায়ীত্ব শেষ করেন নাই। আশ্রয়স্থলের জন্য ভাসান চরে পুর্ণবাসন প্রকল্প গড়ে তুলেছেন। মানুষকে মানুষের মত বাচানোর জন্য।

চীন-ভারত রাজনীতি করছেন মানবতাহীন ব্যবসার জন্য। এই চীন, এই ভারত আমরা দেখিনি। মাওসেতুনের গনচীন সম্পর্কে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর লেখা পড়েছি। মিসেস ইন্দিরা গান্ধীকে আমরা ৭১ দেখেছি, দেখেছি ভারত বাসী কিভাবে আমাদের পাশে থেকে মানুষকে রহ্মা করেছে। নরেন্দ্র মোদির কি ইতিহাস থেকে কিছুই নিবেন না ? বন্ধুত্ব এক পহ্ম হয় না।

শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা নিয়ে রাজনীতি করতে চায় না, চায় না রোহিঙ্গা চরিত্রে বাংলাদেশ মাদকের স্বর্গ রাজ্য গড়ে উঠুক। আমরা রোহিঙ্গাদের মানুষের মত মানুষ করে বিশ্বকে উপহার দিতে পারবো ভাসানচরে পুর্ণবাসনের মাধ্যমে। বাংলাদেশকে একটু সহায়তা করুন। চীনতো আমাদের উন্নয়ন সহযোগী, কেন বার বার প্রশ্নবোদ্ধক করছেন। জাতিসংঘে রোহিঙ্গা প্রস্তাবনা, আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে মামলা, বিশ্ব হত্যার রাজনীতির অংশ বাংলাদেশ হতে চায় না।

বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি প্রতিক হতে চায়। চীন-ভারতের বন্ধুত্বকে সম্মান করতে চায়। বিশ্বকে দেখাতে চায় অস্ত্র ছাড়া, যুদ্ধ ছাড়াও পৃথিবী জয় করা যায়, মানবতাকে জয় করার মাধ্যমে। শেখ হাসিনা আমাদেরকে সেই শিহ্মাই দিচ্ছেন, ধর্মের চাইতে মানুষ বড়, মানুষকে বাচাতে না পারলে, ধর্মকে বিস্তার করা যাবেনা, মানুষ আল্লাপাকের সৃষ্টি। মুসোলমান, খৃষ্টান, হিন্দু হতে পারবেন বেচে থাকলে, বাঁচানো গেলে। রাজনীতিও করতে পারবেন জাতিকে নিয়ে, মসজিদ-মন্দির থাকলে।সময়ের দাবী মানুষ বাঁচান, বাঁচতে দিন, এই পৃথিবী গড়তে দিন শেখ হাসিনাকে। রোহিঙ্গা পুর্ণবাসনে সহায়তা করুন।

লেখকঃ বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব ও রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামলী লীগের সভাপতি জনাব রবিউল আলম।

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102