June 14, 2024, 8:48 pm
শিরোনামঃ
পবিত্র ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোঃ ইব্রাহিম খান তুষার অনেক বড় বড় জায়গা থেকে তদন্ত বাধাগ্রস্ত করতে তদবির করা হচ্ছে: এমপি আনারের মেয়ে সাইদুল করিম মিন্টুর মোবাইলে মেসেজ ‘আনার শেষ, মনোনয়ন কনফার্ম’! লোহার খাঁচার ভেতরে থাকাটা অপমানজনক, হয়রানি করা হচ্ছে: ড. ইউনূস রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধ করতে গিয়ে রুশ সেনাবাহিনীতে নিযুক্ত ২ ভারতীয় নিহত ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেনঃ এনাম-ই-খোদা জুলু ১১ জুন শুধু জননেত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস নয়, গণতন্ত্রেরও মুক্তি দিবস : সাজেদুল ইসলাম নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মনির মিয়াকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সাইদুল ইসলাম বাদল বিরল আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব আশেকে রসূল ‘আল্লামা শায়খ মানযূর আহমাদ (রাঃ)- প্রফেসর ডা. মুহাম্মাদ আমীরুল ইসলাম আল আহমাদী উয়েসী (পি.এইচ. ডি) ‘পুলিশ সদস্য কেন আরেক পুলিশ সদস্যকে গুলি করেছে জানতে তদন্ত হচ্ছে’

মাতৃত্বকালীন স্বাস্থ্য সেবা না পেয়ে হতাশা হয়ে ফিরে গেল পল্লবী সিকদার

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Saturday, July 22, 2023
  • 87 Time View
সাহিদুল এনাম পল্লবঃ
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পদ্মাকর ইউনিয়নের লৌহজং গ্রামে বাড়ি পল্লবী সিকদারের। অন্তঃসত্ত্বা পল্লবী সিকদার লৌহজং থেকে স্বামীর সাথে এসেছিল পদ্মকর ইউনিয়ন পরিবার পরিকল্পনা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। দারিদ্রতার কারণে বড় ডাক্তারের কাছে যাওয়ার ক্ষমতা নেই তার। তাই অনেক কষ্টের কোনরকমে বাড়ার টাকাটা যোগাড় করে এসেছে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্রে। পদ্মা কার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে এসে জানতে পারলো যে তার সেবা দেয়ার মত এখানে কোন ব্যবস্থা নেই। পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক সপ্তাহে তিন দিন আসে আজ তার পোড়াহাটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের দায়িত্ব আছে। প্রায় দুই বছর যাবত এখানে নেই উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার। একজন ফার্মাসিস্ট থাকার কথা থাকলেও নেই কেউ এই পথ রয়েছে শূন্য। শুধু ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটি খুলে বসে আছে শফিকুল ইসলাম নামে একজন নিরাপত্তা প্রহরী ও নামে একজন আয়া। তাদের দ্বারা কোন সেবা দেওয়া সম্ভব না পল্লবী শিকদারের। শুধু পল্লবী সিকদার নয় এইভাবে প্রতিদিন কোন না কোন পল্লবী সিকদার এসে প্রতিনিয়ত ফিরে যাচ্ছে পদ্মকর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ থেকে। অথচ ইউনিয়ন পর্যায়ে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটি স্থাপিত হয়েছিল এই ইউনিয়নের প্রসূতি মায়ের চিকিৎসা সেবা ও জরুরী মুহূর্তে প্রসাবে সহযোগিতা করা সহ ইউনিয়নের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার জন্য। ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ঠিক কিন্তু সাধারণ জনগণ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উদাসীনতার কারণে জনবল না থাকায় সেই সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত।
এই প্রসঙ্গে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার তানিয়া আক্তার জানান যে পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক হিসেবে যার দায়িত্বে আছে সে মাতৃকৃতকালীন ছুটিতে আছে যার কারণে ওখানে কাঙ্খিত সেবা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়াও উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার কয়েক বছর যাবত নেই। চরম জনবল সংকট নিয়ে চলছে ঝিনাইদহের ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র।
শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102