April 13, 2024, 4:27 pm
শিরোনামঃ
বাংলা ও বাঙ্গালীর নববর্ষঃ আঃ রহমান শাহ ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন কৃষক লীগ নেতা মোঃ হালিম খান পদ্মা সেতুতে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড জাহাজেই ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করলেন জিম্মি নাবিকরা পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছে আলহাজ্ব লায়ন মোঃ দেলোয়ার হোসেন বাংলাদেশের আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে, কাল ঈদ সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করুন :প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন মোঃ বশির আহম্মেদ রাজবাড়ীর কালুখালীতে বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে কারখানায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ রাজধানী মোহাম্মদপুর মোঃ রুস্তুম আলীর আয়োজনে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

মাটির সাথে সম্পর্কহীন,বিএনপি বিহীন নৌকার হলো তৃতীয়

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Tuesday, January 9, 2024
  • 43 Time View
আওয়ামীলীগ পরাজিত করতে পারে আওয়ামীলীগ, প্রমান করেছে ২০২৪ এর নির্বাচন। মনোনয়ন বোর্ডের মনোনীত অনেক হেভিওয়েট প্রার্থী নৌকা কে তিন নম্বর অবস্থান এনে দিয়েছে। প্রতিদন্ধিতাহীন কয়েকজন হেভিওয়েট পুলসেরাত পার হয়েছে,শেখ হাসিনার অর্জনের উপর নির্ভর করে, কিছু ভদ্রলোক সংসদ সদস্য প্রতিদন্ধিতা করেন নাই বলে। মাটির সাথে সম্পর্কহীন নেতাদের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন কতোটা প্রশ্নবিদ্ধ ছিলো, ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন, জয়া সেন গুপ্তারা প্রমান করেছে। বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলো না কেনো ? নেতাকর্মী জেলে রেখে রাজনৈতিক শূন্যতায়, রেলগাড়ীতে আগুন দিয়ে আত্নহত্যার পথে,আন্তর্জাতিক অপরাধ জগতে। অনেক প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে, বিএনপি জামাত কে। আপনার রাজনৈতিক ভুল সংশোধন করতে হয় জনগণকে,সেই সুযোগ কেনো দেওয়া হলো না ? জনগণের উপর আস্তা রাখলো না। হিরো আলমকে জনগণ জবাব দিয়েছে। আশাকরি সংশোধন করে নিবেন,জনগণের সাথে তামাশা চলে না। বাঙালি জাতি কারো তামাশার পাত্র হতে পারে না।
জাতীয় পার্টি ইতিমধ্যে ওরা ১১ জন হয়েছেন, নৌকায় চরে। ফরিদপুরে নৌকার পরাজয়, বগুরায় নৌকার জয় জনগণের বিচক্ষণতার পরিচয় বহন করে। চাইলেই এই দেশের জনগণ কলাগাছে ভোট দিতে পারে না।জনগণ জনপ্রতিনিধি বেছে নিবেন তাকেই, যিনি দীর্ঘদিন জনগনকে সঙ্গ দিবেন।জনগণের সুখেদুখে পাশে থাকবেন। ক্ষমতার জন্য কিশোর গাং, মাদক কারবারী, ভূমিদস্যু লালনপালন কারীদের ভোটের মাধ্যমে জবাব দিতে হবে,জনগণ কখনো ভুল করে না। ধন্যবাদ দিতেই হবে নির্বাচন কমিশনকে। এতোটা বিতর্কের মাঝে আন্তর্জাতিক মানদন্ড বজায় রেখে নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য। জনগণ ভোট দিতে আসে না ? এই কথার ভুল প্রমান করেছেন। ভোটের প্রয়োজন কোথায় ? জনগন সেখানেই হাজির হয়েছেন ভোট নিয়ে।
চেয়ারম্যানের কাছে মন্ত্রীর, ফুটবলারের কাছে শিল্পীর, মিছকিনের কাছে পুঁজিপতির পরাজয়ের নাম নির্বাচন। গনতন্ত্রে জনগণ রাষ্ট্রের মালিক, ভোটের প্রয়োজনে তৃতীয়লিঙ্গ বেছে নিতে পারে।ভোটের সংখ্যা কম হলেও, অহংকারীদের পতনের লক্ষ্যে।অনেক নক্ষত্রের পতন হয়েছে, কিছু নক্ষত্র প্রতিদন্ধিতা ছাড়া আত্নরক্ষা করতে পেরেছেন। আত্মতুষ্টির জন্য চাটুকার মুক্ত হতে হতে পারবে তো ? জনগণের সেবার জন্য। পুর্বের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে,নেতৃত্বের জন্য সঠিক নেতৃত্ব বাছাই করতে হবে, যারা আপনাকে ভুলপথ দেখাবে না। না-হয় আম খাওয়ার আগে ছালা বাধতে হবে।মাসরাফি ও সুমনরা উদাহরণ হতে পারে।মাটির সাথে সম্পর্কহীন দের মনোনয়ন দিলে,ডাঃ এনামুর রহমানের মতো হতে হবে, সৎলোক ভদ্রলোকরা শুধু আদর্শের মাধ্যমে ভোট আদায় করতে পারবেন না। অদৃশ্য শক্তি আপনার প্রতিপক্ষ।
লেখকঃ বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব, রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খাস খবর বাংলাদেশ পত্রিকার সম্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলী জনাব রবিউল আলম।
শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102