শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বৃষ্টির দিনেও রান্না করা খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে রাজধানী মোহান্মদপুর ক্লাব সাধারণ সম্পাদক পদে সকলের পছন্দ হাফেজ মাওলানা মোঃ ইসমাইল হোসেন মানি ইজ নো প্রবল্যামের রাজনীতির জনক জিয়া, বঙ্গবন্ধু ছিলেন রাজনৈতিক কৃপণতার জনক অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে কারিগরি শিক্ষা: শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল ইভিএম পেশীশক্তিকে প্রতিরোধে সহায়ক, দিনের ভোট দিনের জন্য মুলমন্ত্র ৩৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় শেখ মোঃ জহিরুল ইসলাম অপু বিনামূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা এবং ঔষধ বিতরণের ব্যবস্হা করেছে বাংলাদেশ ডেন্টাল হেলথ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটির ৩১ নং ওয়ার্ড বিএনপির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় সাজেদুল হক খান রনি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে লায়ন এম এ লতিফ’র শোক স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে নুরে আলম সিদ্দিকী হক’র শোক

ভাস্কর্যকে মূর্তির সঙ্গে তুলনা কোরআনবিরোধীঃ হাফেজ মওলানা জিয়াউল হাসান

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ১১২ দেখা হয়েছে

মোঃ ইব্রাহিম হোসেনঃ বাংলাদেশ সম্মিলিত ইসলামী জোটের সভাপতি হাফেজ মওলানা জিয়াউল হাসান বলেছেন, ভাস্কর্যকে মূর্তির সঙ্গে তুলনা করা কোরআনবিরোধী।

মুসলমানরা কেউই ভাস্কর্যের সামনে গিয়ে প্রার্থনা করেন না। শুধু অমুসলিমরাই মূর্তির সামনে গিয়ে পূজা করেন। পবিত্র  কোরআনে  সূরা সাবা’র ১৩ নম্বর আয়াতে ‘তামাসিলা’ অর্থাৎ ভাস্কর্য এবং সূরা ইব্রাহিমের ৩৫ নম্বর আয়াতে উল্লেখিত ‘আসনাম’ শব্দের অর্থ প্রতিমা পূজাকে একই অর্থে ব্যবহার করে স্বাধীনতাবিরোধী, ধর্ম ব্যবসায়ীরা পবিত্র কোরআনের বিকৃত অর্থ করে মাঠ গরম করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, মূর্তি বা ভাস্কর্য মাত্রই শিরকের উপকরণ নয় বরং যেটি যে উদ্দেশ্যে বানানো হয় সেটিকে সেভাবে বিবেচনা করতে হবে। তাই এদের এ দাবি ধোপেও টেকে না। মূর্তি ও ভাস্কর্য যে উদ্দেশ্যে নির্মাণ করা হচ্ছে সেই উদ্দেশ্য নির্ধারণ করবে এটি বৈধ নাকি অবৈধ।

সম্মিলিত ইসলামী জোটের উদ্যোগে গতকাল ২৩ নভেম্বর ২০২০ রোজ রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন তিনি এ মন্তব্য করেন।

মওলানা জিয়াউল হাসান বলেন, ‘‘ভাষা শহীদদের স্মরণে নির্মিত শহীদ মিনার, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে নির্মিত জাতীয় স্মৃতিসৌধ, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে নির্মিত শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ এবং সাতজন বীরশ্রেষ্ঠের নামে স্থাপিত স্মৃতি ভাস্কর্যের সামনে গিয়ে বাংলাদেশের কোনো মুসলমান যখন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তখন তারা কেউই কিন্তু সেখানে বোখারি এবং মুসলিমের প্রথম হাদিস ‘ইন্নামাল আমালু বিন্নিয়্যাত’ এর শিক্ষা অনুযায়ী ইবাদতের নিয়তে বা প্রার্থনা করার নিয়তে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন না।

সংবাদ সম্মেলনে দেশবিরোধী ঘৃণ্য ফতোয়াবাজ, ধর্মব্যবসায়ী ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে ধর্মপ্রাণ জনগণকে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয়। এ ছাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মরণে নির্মিত ভাস্কর্য, শহীদ মিনার, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ, সাতজন বীর শ্রেষ্ঠের ভাস্কর্য, জাতির ইতিহাস ও ঐতিহ্য বহন করে  সেসব স্মৃতি সংরক্ষণের জন্য কঠোর আইন প্রণয়নের জন্য দাবি জানানো হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুফতি জোবাইদ আলী, ইঞ্জিনিয়ার আলহাজ আবদুস সোবহান মিয়া, হাফেজ মাওলানা আবুল হোসেন, মাওলানা মোসলেহ উদ্দিন ফোরকান, অধ্যক্ষ মাওলানা ফারুক হোসাইন, মুফতি মাওলানা শরীফ হোসাইন প্রমুখ

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102