June 14, 2024, 11:01 pm
শিরোনামঃ
পবিত্র ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোঃ ইব্রাহিম খান তুষার অনেক বড় বড় জায়গা থেকে তদন্ত বাধাগ্রস্ত করতে তদবির করা হচ্ছে: এমপি আনারের মেয়ে সাইদুল করিম মিন্টুর মোবাইলে মেসেজ ‘আনার শেষ, মনোনয়ন কনফার্ম’! লোহার খাঁচার ভেতরে থাকাটা অপমানজনক, হয়রানি করা হচ্ছে: ড. ইউনূস রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধ করতে গিয়ে রুশ সেনাবাহিনীতে নিযুক্ত ২ ভারতীয় নিহত ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেনঃ এনাম-ই-খোদা জুলু ১১ জুন শুধু জননেত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস নয়, গণতন্ত্রেরও মুক্তি দিবস : সাজেদুল ইসলাম নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মনির মিয়াকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সাইদুল ইসলাম বাদল বিরল আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব আশেকে রসূল ‘আল্লামা শায়খ মানযূর আহমাদ (রাঃ)- প্রফেসর ডা. মুহাম্মাদ আমীরুল ইসলাম আল আহমাদী উয়েসী (পি.এইচ. ডি) ‘পুলিশ সদস্য কেন আরেক পুলিশ সদস্যকে গুলি করেছে জানতে তদন্ত হচ্ছে’

ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Wednesday, May 15, 2024
  • 48 Time View

ভারতের নির্বাচন নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে।নির্বাচনের কথার কীআর সীমাপরিসীমা আছে! কথা হচ্ছিল হিন্দু মুসলমান নিয়ে। ভারতের বারো জাতির খবর কেউ রাখে না। রাজনৈতিক দলের প্রয়োজন হয় না বলে।ভোটের জন্য ধর্ম একটা বড় ইস্যু হতে পারে। হানাহানি মতবাদ হিংসা বিদ্বেষ ছড়াতে না পারলে ভোটারদের ভুলপথে নেওয়া যাবে না।দেশ বিভাগে ধর্মের ব্যবহারে হিন্দুস্থান পাকিস্তানের জন্ম হয়েছিলো । ভাষার জন্য মানবতার মানবিকতার জন্য ধর্মের দোহাই দিয়ে বাঙালি জাতি কে আবদ্ধ করতে পারেনি পাকিস্তানের স্বৈরশাসকরা, বাংলাদেশ নামে একটা রাষ্ট্রের জন্ম হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারিশর্মায় ধর্মের বিভাজন ছুতে পারেনি, বাঙালি জাতির পরিচয় বহন করছে। মহাত্নার প্রেম ধর্মের লেবাস পরাতে পারেনি ভারতীদের মনে।ঐক্যবদ্ধ ভারত বিশ্বের উদাহরণ হয়েছিলো। আজও ভারতীদের কাছে ভারত বিরোধী কোনো মন্তব্য করা যায় না, হিন্দু মুসলিম পরের কথা। সেই মানবিক ভারত আজ ধর্মের ননামে বিভাজন, ভোটের জন্য। এই বিভাজনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতীয় রাজনৈতিক দলগুলো। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য মহাত্না গান্ধী, শেখ মজিবুররহমান,জর্জ ওয়াশিংটন, স্টালিন, মাওসেতুনরা নিজেদের কে বিলিয়ে দিয়েছেন স্বাধীনতার জন্য, একটি মানচিত্রের জন্য।রাজনীতি কে পুঁজি করে,মহান নেতার মহানুভবতার সুযোগ নিয়ে এখন রাজনীতি হচ্ছে ধর্মের বিভাজনে।শিবসেনা, আরএসএস,বিজেপি হিন্দু বানায়। এআইইউডিএফ এর বদরুদ্দীন আজমল,আইএসএফ আব্বাসউদ্দীন সিদ্দিকী, মজলিসে ইত্তেহাদুলের আসাদউদ্দিন ওয়াইসি,যোগী, সর্নাল মোদীদের জন্য ভারত হিন্দু মুসলিমের রূপ ধারন করেছে। বিনষ্ট হয়চ্ছে ভারতীয় ঐক্য।
এই ঐক্য বিনষ্ট কারীদের আপনি মুসলমান ঠাকুর বলবেন! নাকি হিন্দু আলেম বলবেন ?বিজেপি হটানোর শ্লোগান আছে, বাচানোর জন্য গোপন আঁতাত।
সারা ভারতের ইতিহাস লেখে শেষ করা যাবে না, কাশ্মীর ও আসমের উদাহরণ থেকে বুঁজে নিতে হবে ভারতীয় মুসলমানদের অধিকার আদায়ের নমুনা। মনের কথার সাথে ভোটের কথার মিল খুঁজে পাবেন না।কাশ্মীর ও আসাম ভারতের সর্ব বিহৎ মুসলিমদের অবস্থান। করিমগঞ্জ নওগাঁ ধুবড়ি শীলচর ৬২ শতক মুসলিম ভোটার, কংগ্রেস কে পরাজিত করার জন্য মাওলানা বদরুদ্দীন আজমল নির্বাচনের কিছুদিন মুসলমান হয়ে পরেন, বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য।
প্রতিটি নির্বাচনি কেন্দ্র থেকে ১০/২০ শতক ভোট কেটে করিমগঞ্জের মতো মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এলাকায় বিজেপিকে পাশ করার সুযোগ করে দেন, নিজে ধুবড়ি। বিনিময় মধ্যেপ্রাচ্যে আগর রপ্তানি করে অবৈধ টাকা কুমির হয়েছেন আজমল সাহেব। নির্বাচন শেষ, কংগ্রেস কে হারানো শেষ,আজমলদের রাজনীতি শেষ। কে মুসলমান কে হিন্দু আজমল যোগীদের খবর কে রাখে, মসজিদ ভাঙলো না মন্দির ! এতকিছু দেখার সময় নাই। ভারতীরা ঘরে ঘরে হিন্দু মুসলমানকে ধর্মের নামে আবদ্ধ করছেন, মানবিক মানুষ হতে দিচ্ছে না। হিন্দু মুসলিমের রাজনীতি পরিত্যাগ করে পারলে বিশ্ব পেতো এক মহান দেশ, মহাত্মার আত্নার পেতো শান্তির বার্তা। বিশ্ব অর্থনীতির জন্য এক সমৃদ্ধশালী দেশে পরিনতি হতো।
বাংলাদেশ, ভারতীয় সংস্কৃতির ধর্মের রাজনীতি থেকে কিছুটা হলেও মুক্ত হতে পারতো। প্রতিবেশী দেশ হওয়াতে ভারতকে নিয়ে ভাবতে হয়। ভারতের যন্ত্রণা কিছুটা হইলেও সইতে হয়। ভারতের মসজিদের হামলা থেকে বাংলাদেশের মন্দিরে হামলা হয়। মাঝে মাঝে হিন্দু মুসলমান হয়,শেখ হাসিনা একার পক্ষে কত সয় ? মমতার মমতা, যোগীর ক্ষমতা, ওয়াইসি, আব্বাসের মুসলমান বানোর কারখানা কী মহাত্নার ভারতকে রক্ষা করতে পারবে ? নাকি মানবতার শেষ পেরেকটা মোদি যোগী, আজমলদের হাতেই ঠুকবেন ? জবাবের জন্য ৪ জুন অপেক্ষা করতে হবে।

লেখকঃ বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব, রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খাস খবর বাংলাদেশ পত্রিকার সম্মানিত উপদেষ্টা মন্ডলী জনাব রবিউল আলম।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102