April 14, 2024, 5:10 am
শিরোনামঃ
বাংলা ও বাঙ্গালীর নববর্ষঃ আঃ রহমান শাহ ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন কৃষক লীগ নেতা মোঃ হালিম খান পদ্মা সেতুতে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড জাহাজেই ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করলেন জিম্মি নাবিকরা পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছে আলহাজ্ব লায়ন মোঃ দেলোয়ার হোসেন বাংলাদেশের আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে, কাল ঈদ সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করুন :প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন মোঃ বশির আহম্মেদ রাজবাড়ীর কালুখালীতে বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে কারখানায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ রাজধানী মোহাম্মদপুর মোঃ রুস্তুম আলীর আয়োজনে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

বিদায় ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানের স্রষ্টাঃ এনডিপি সহ বিভিন্ন মহলের শোক

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Monday, July 5, 2021
  • 276 Time View

গান শুধু বিনোদন নয়, গান মানুষকে অনুপ্রাণিত করে। মন চাঙা রাখতে যে কোনো ঔষধের চেয়েও কার্যকর ভূমিকা পালন করে গান। বিশেষত মুক্তিযুদ্ধকালীন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত গানগুলো সে উদ্দেশেই প্রচারিত হতো। সে সময়ে সৃষ্টি বহু দেশাত্ববোধক গান আজও মানুষের মনকে দোলা দেয়। যে গানগুলো পেয়েছে কালজয়ী গানের মর্যাদা। ঠিক তেমনি একটি দেশাত্ববোধক গান ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’।
এই গানের স্রষ্টা ফজল -এ-খোদা। ৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে গানটি লিখেছিলেন তিনি, তবে গানটি সেসময় রেকর্ড হয়নি। পরবর্তীতে ১৯৭১ সালের ১১ মার্চ বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনা আসে যে, শহীদদের স্মরণে গান লিখতে হবে; সে নির্দেশনা পেয়ে আব্দুল জব্বারের কথায় ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানটির কথা মনে হয় ফজলের। গানটি ১৪ মার্চ ধীর আলী মিয়ার সংগীতায়োজনে রেকর্ড হয় এবং শিল্পী মোহাম্মদ আবদুল জব্বারের কণ্ঠে ছড়িয়ে যায় বাঙালির কণ্ঠে কণ্ঠে!
সেই কালজয়ী গানের স্রষ্টা ফজল-এ-খোদা কোভিড আক্রান্ত হয়ে চলে গেলেন রবিবার (৪ জুলাই)। এদিন ভোর চারটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।
ফজল-এ-খোদার ছেলে সজীব ওনাসিস জানিয়েছেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ফজল-এ-খোদা। গত মঙ্গলবার করোনা পজিটিভ আসার পর বাসায় থেকে দু’দিন চিকিৎসা নেন তিনি, এরপর অবস্থা খারাপ হলে বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
রবিবার সকাল ১১টার পর রায়েরবাজার কবরস্থানে গুণী এই গীতকারের দাফন সম্পন্ন হয়।
গীতিকার ফজল-এ-খোদা। নামে হয়তো এ প্রজন্মের অনেকের কাছেই অপরিচিত তিনি। তবে তার লেখা গানের নাম শুনলেই বিনাবাক্যে বলে উঠবেন অতি পরিচিত। আজ চিরবিদায় নিয়ে চলে গেলেন প্রখ্যাত এ গীতিকার। কিন্তু তিনি চলে গেলেও নিজের অনবদ্য সৃষ্টির জন্য বাংলা গানের ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবেন তিনি। তার রচিত ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানটি মানুষকে সব সময় উদ্দীপ্ত করে । শুধু দেশের গান রচনা করেননি তিনি। তিনি লিখেছেন প্রেমের গানও।
সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানের গীতিকার হিসেবে কোন রাষ্টীয় কোনো স্বীকৃতি পাননি তিনি। গানটির শিল্পী এর জন্য রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পেলেও গীতিকারের ভাগ্যে ৫০ বছরেও জোটেনি স্বীকৃতি।
মাসুদ পারভেজ পরিচালিত ‘এপার ওপার’ সিনেমায় ‘ভালোবাসার মূল্য কতো’ শিরোনামের শ্রোতাপ্রিয় গানটি ফজল এ খোদার লেখা। গানটির সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী ছিলেন আজাদ রহমান। সিনেমায় এ গানে ঠোঁট মিলিয়েছিলেন নায়ক সোহেল রানা।
‘ভাবনা আমার আহত পাখির মতো’ গানটি ফজল-এ-খোদা লেখেন ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে নৃশংসভাবে হত্যার শিকার হলে। গানের বাণীগুলো হলো—‘ভাবনা আমার আহত পাখির মতো, পথের ধুলোয় লুটোবে, সাত রঙে রাঙা স্বপ্ন-বিহঙ্গ, সহসা পাখনা লুটোবে।’ গানটি বশীর আহমদের সুরে গেয়েছিলেন মোহাম্মদ আবদুল জব্বার। ১৯৭৬ সালে বেতারে প্রচারিত এই গানটিও শ্রোতাপ্রিয়তা পায়।
‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানটির সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী মোহাম্মদ আবদুল জব্বার। দেশাত্মবোধক এ গানটি বিবিসির জরিপে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাংলা গানের তালিকায় সেরা ২০ গানের মধ্যে ১২তম স্থানে রয়েছে।
‘যে দেশেতে শাপলা শালুক ঝিলের জলে ভাসে’ শিরোনামের এই দেশের গানটির সুরকার ও সংগীত পরিচালক আবেদ হোসেন খান। গানটি প্রথম গেয়েছেন জিনাত রেহানা।
কণ্ঠশিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদী গীতিকবি ফজল-এ-খোদা বিষয়ে বলেন, ‘আমি ফজল-এ-খোদার রচনায় বেশকিছু গান গেয়েছি। তার গানের কথায় প্রেমের বিষয়টা অন্য গীতিকবিদের মতোই ছিল। কিন্তু দেশের গানের পাশাপাশি দেশের সংগ্রাম, প্রতিবাদ, মুক্তি খুব গভীরভাবে পাওয়া যেতো। এখানেই গানের বাণী রচনায় অন্যদের তুলনায় তাকে আলাদা করা যেতো। গান লেখার পাশাপাশি ছোটদের জন্য দারুণ ছড়া, কবিতাও লিখতেন তিনি। একজন সৃজনশীল মানুষ বলতে যা বুঝি তার মধ্যে তার সবই ছিল। কালজয়ী বেশকিছু গান রচনা করেছেন তিনি।’
গীতিকবি ফজল-এ-খোদার গীতিকবিতায় আজাদ রহমান, আবদুল আহাদ, ধীর আলী, সুবল দাস, কমল দাশ গুপ্ত, আবেদ হোসেন খান, সত্য সাহার মতো বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক গান করেছেন। সেই গান কণ্ঠে তুলেছেন বশীর আহমেদ, আবদুল জব্বার, মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, রথিন্দ্রনাথ রায়, সৈয়দ আব্দুল হাদীসহ অনেকেই।
ফজল-এ-খোদা ১৯৪১ সালের ৯ মার্চ পাবনায় জন্মগ্রহণ করেন। আজ ভোর ৪টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।
‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ খ্যাত বিশিষ্ট গীতিকবি ফজল-এ-খোদার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেনন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপির) চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্তজা,ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপির) মহাসচিব মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ভাইস চেয়ারম্যান রাজু আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব হায়াত মাহমুদ সহ ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপির) মহাসচিব মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ভাইস চেয়ারম্যান রাজু আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব হায়াত মাহমুদ সহ এনডিপি পরিবার। ।
এনডিপি পরিবার এক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
শোকবার্তায় এনডিপি পরিবার জানান, অসংখ্য কালজয়ী গানের স্রষ্টা ফজল-এ-খোদা তার সৃজনশীল কর্মের মধ্য দিয়ে সংগীতপ্রেমী মানুষের হৃদয়ে চিরকাল বেঁচে থাকবেন।
ফজলে-এ-খোদা ছিলেন কবি, ছড়াকার ও গীতিকবি। তার রচিত ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানটি জায়গা করে নিয়েছে বিবিসি’র সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাংলা গানের তালিকায়। ১৯৬০ এর দশক থেকে শুরু করে ফজল-এ-খোদা অসংখ্য দেশাত্মবোধক, আধুনিক, লোকগান ও ইসলামী গান রচনা করেছেন। ঢাকা বেতারের সাবেক আঞ্চলিক পরিচালক ফজলে-এ-খোদা শিশু-কিশোরদের সংগঠন শাপলা শালুকের আসরের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ছিলেন তিনি।
বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা, মহাসচিব এডভোকেট সাইফুল ইসলাম সেকুল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন আল আমিন তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102