বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১১:২৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
২৬ শর্তে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ থেকে সঠিক রাজনৈতিক নির্দেশনা নাই অবিভক্ত ঢাকার নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ এর মৃত্যু বার্ষিকীতে ব্যথিত হয়েছি বাসাপ এর জমকালো ৩৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ব্রাজিলের ৪০০ জার্সি বিতরণ করলেন ঝাল মুড়ি বিক্রেতা মোহাম্মদ জাবেদ বিএনপির সঙ্গে জোটের প্রশ্নই আসে না: রওশন এরশাদ মেয়র হানিফকে হারিয়ে, ঢাকা এখন রাজনৈতিক অন্ধকারে বিশ্বকাপে নতুন ইতিহাস গড়লেন মেসি সিমিন হোসেন রিমি আ.লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মনোনীত হওয়ায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন আবু সাঈদ তালুকদার রিচার্লিসনের জোড়া গোল, দাপুটে জয় ব্রাজিলের

বিএনপি কতকাল আওয়ামী লীগের খেলার পুতুল হবে? রাজনীতির জন্য নিজস্ব কিছু অর্জন থাকতে হবে 

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৫১ দেখা হয়েছে
বার বার নির্বাচন বয়কট করে দেশের জনগণকে প্রতিযোগীতা থেকে বঞ্চিত করছে। নেতা কর্মী ও অর্থ প্রাপ্তির স্থানগুলো হাত ছাড়া হচ্ছে । ভারত ভারত করে, ভারতীয় হাই কমিশনে ধরণা দিচ্ছে। ভারতের বিরুদ্ধে একটি কথা এখন বলছেন না। রহস্যের বেড়াজাল দেশের জনগণ, নেতা কর্মী ও সহ যুদ্ধা রাজনৈতিক দলগুলো বুঝতে পারছে না।
আমরা বুঝতে পারছি না অসময়ের রাজনীতি। কোন ইস্যুটা নিয়ে বিএনপি পুলিশের উপর আক্রমণ করছে।
পুলিশ ছাড়া দেশ চলে না, পুলিশ ছাড়া রাজনীতি হয় না।
পুলিশ ছাড়া বিএনপি জামাত একদিন মাঠে নামতে পারবে না,তবু পুলিশকেই আক্রমণের বিষয়বস্তু করা হচ্ছে কেনো ? পুলিশ পিটিয়ে চিহ্নিতরা কোথায় পালাবে ? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চায়ের দাওয়াত দিয়েছে বলে ? নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ জনসমাবেশের নামে যে নারকিয় ঘটনা ঘটানো হলো। বিএনপির দু’টি তাজাপ্রান হারিয়ে গেলো, দু’টি মায়ের বুক খালি হলো, হাজার হাজার নেতা কর্মী ঘর ছাড়া। নির্বাচনের পনেরো মাস আগেই পুলিশের তালিকায় নাম উঠানো, শক্তিশালী বিএনপির নির্বাচনি এলাকাগুলো চিহ্নিত করা। আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক কৌশলের কাছে বিএনপি ইচ্ছেকৃত দরা দেওয়া, আমার কাছে বোধগম্য নয়।
সময় মতো ঠুশ না হলেই হয়। বিএনপির আন্তর্জাতিক রাজনীতিকে শেখ হাসিনা নিঃশেষ করে দিচ্ছে। ভারতের তেল পাইপ লাইনে, আমেরিকার রাষ্ট্রপতির আমন্ত্রণে, চীনকে বশ করেছে মেগাপ্রকল্পে, জাতিসংঘ বশ হয়েছে রোহিঙ্গা ইস্যুতে,রাশিয়া বন্ধু হয়েছে ৭১ এর স্বাধীনতা সংগ্রামে, ইউক্রেন যুদ্ধে গেড়াকলে। ইউরোপ যোগ্য নেতৃত্ব খুঁজে পাচ্ছে না বিএনপিতে। মিয়ানমার যুদ্ধ বাংলাদেশের ভাগ্য খুলে দিতে পারে জাপান। এর পরেও জাতিসংঘ ঘোষিত বিশ্বের দ্বিতীয় প্রধান মন্ত্রীর সম্মান অর্জন করেছে শেখ হাসিনা স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্যে । বিএনপি কি নির্বাচন ছাড়া টিকে থাকতে পারবে ? নাকি শেখ হাসিনার মতো আন্তর্জাতিক সমকক্ষ একজন নেতা আবিস্কার করতে পেরেছে ? তবে রাজনীতি নিয়ে এতো ছলাকলার অর্থ কি ? নেতা কর্মী হারানো, সমর্থকদের মনে ভয় সৃষ্টি করে কি আর জয়ী হওয়া যাবে ? পরিকল্পনা কতটুকু যুক্তিসংগত ? আমার কষ্ট হয়, বিএনপির ভুল রাজনীতির মাসুল দিতে হচ্ছে মাঠের আওয়ামীলীগার দের কে।
নির্বাচনি প্রতিযোগীতা ছাড়া প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলের কর্মীদের মুল্যায়ন হয় না। মনোনয়ন পাইলেই জয়ের নিশ্চয়তা হলে জনগণ পছন্দের প্রার্থী বেছে নিতে পারে না। বিএনপিকে হুশে আসতে হবে, অসময় গর্জন বন্ধ করে। ভালো মন্দের সব বিচারের ভার এখন শেখ হাসিনার উপর ন্যাস্ত, তার উন্নয়ন ও অঙ্গিকার সঠিক হওয়ার জন্যে। জনগণ ও আন্তর্জাতিক রাজনীতির কাছে গ্রহনযোগ্য নেতা নির্বাচন করতে হবে বিএনপিকে। শেখ হাসিনার বিকল্প হতে চাইলে। রাজনৈতিক কারিশমা হবে ভোটে। রাজনীতির জন্য নির্বাচন, না হয় প্রতিরোধ ক্ষমতা যদি থাকে।
ফালাইতে না পারলে আমার কথা চর্চ্চা করে দেখতে পারেন।সরকারে না যাইতে পারলেও শক্ত একটা বিরোধী দল পাবে জনগণ । আপনাদের হারানোর কিছু নাই।
খালেদা জিয়া নিস্ক্রিয় , তারেক জিয়া দন্ডপ্রাপ্ত লন্ডনে। নির্বাচনে যদি একটু মাটি পাওয়া যায় আন্তর্জাতিক দর কশাকশির জন্যে।জনগণের জন্যই আপনাদের নির্বাচন করতে হবে। জনসমর্থন পাকিস্তান সামরিক সরকার আটকাতে পারে নাই, বাঙালির মুক্তি। তত্বাবধায়ক সরকারের প্রয়োজন হয় নাই।
লেখকঃ বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব ও রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের চলতি দায়িত্ব প্রাপ্ত সভাপতি জনাব রবিউল আলম।

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102