May 19, 2024, 5:31 pm
শিরোনামঃ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা বিচার ব্যবস্তার সুচনার ইতিহাস জানিনা, বিতর্কের শেষ কোথায় ? বুঝতে পারছি না বঙ্গ কণ্যার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলার মাটি কে বুকে ধারন, ইতিহাসের অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি পাঠাগারের কমিটি গঠন জহির সভাপতি ও লিটন সাধারণ সম্পাদক গাজায় নিজেদের গোলার আঘাতে পাঁচ ইসরায়েলি সেনা নিহত তালের শাঁস খেলে যেসব উপকার হয় ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ওবায়দুল কাদের বিশ্বাস পুনর্নির্মাণের জন্য আমি বাংলাদেশ সফর করছি: ডোনাল্ড লু ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই গুলিস্তান-মিরপুরের কাপড় পাকিস্তানের বলে বিক্রি করেন তনি!

দেশশ্রেষ্ঠ ওসির শুভজন্মদিনে সহস্র ফুলের অজস্র পাঁপড়ির ফুলেল শুভেচ্ছা।

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Saturday, September 4, 2021
  • 320 Time View
!! মোঃ রিদওয়ান আবিদ চৌধুরী জয়!!
সময়ের সেরা দেশশ্রেষ্ঠ ওসি জনাব কাজী ওয়াজেদ আলীর শুভ জন্মদিনকে (৪-সেপ্টেম্বর) স্মরণীয় করে রাখতে আজকের আয়োজনে তাকে নিয়ে আমার লেখা “শুভ জন্মদিন” স্পেশাল কথন।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ওসি গুলশান ডিবিতে যিনি বর্তমানে কর্মরত।
সাধারণ জনতা ইতিমধ্যে তাকে সময়ের সেরা ওসির খেতাবে ভূষিত করেছেন।
সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা বাংলাদেশ পুলিশ বাহিণী অচিরেই তাকে কোন রাষ্ট্রীয় সম্মান (মেডেলধারী সেবা পদক)-এ ভূষিত করবেন।
সেইসাথে সময়ের দাবী এমন জনবান্ধব দেশপ্রেমিক বীর যোদ্ধাকে দেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিণী আরো উচ্চপদে পদন্নোতি দিয়ে তাকে তার প্রাপ্য মর্যাদার আসনে পদায়ন করবেন।
এই মহান মানুষটির শুভ জন্মদিন (৪-সেপ্টেম্বর) উপলক্ষে তাকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা, প্রাণঢালা

অভিনন্দন
ও অভিবাদন।
জনাব কাজী ওয়াজেদ আলী যেকোন নতুন কর্মস্থলে যোগদানের পরপরই সেই জায়গার আইন-শৃঙ্খলায় যুক্ত হয় ভিন্ন মাত্রা এবং উম্মোচিত হয় এক নতুন দিগন্ত।
মাদক, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, ইভটিজিং, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়ে খুব কম সময়ের মধ্যেই তিনি সাধারণ জনতার কাছে হয়ে উঠেন আস্তাভাজন।
বিশেষ করে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখিয়ে মাদকমুক্ত পরিবেশ গড়তে তিনি বদ্ধপরিকর।
তিনি যেখানেই পদায়িত হননা কেন?
নিজে দাঁড়িয়ে থেকে দিন-রাত বিশেষ অভিযান চালিয়ে অল্পদিনের মধ্যেই সকল অনৈতিক কর্মকান্ড ও মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে জনতার আস্থার প্রতিদান দেন। সেইসাথে আদায় করে নেন সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধা,ভালবাসা আর বিশ্বাস।
তাই সাধারণ মানুষ তাকে মনের গহীনে স্থান দিতে শুরু করেন। তার দূরদর্শী নেতৃত্বে অসাধু পুলিশ সদস্যদের চিহ্নিত করে তীক্ষ্ণ বুদ্ধিমত্তার সাথে তাদেরকে সরিয়ে নেন এবং তৎক্ষণাৎ সেখানে আর্দশবান সৎ অফিসার নিযুক্ত করেন। তার এহেন সময়পোযোগী তড়িৎ সিদ্ধান্তে ভেঙ্গে পড়ে অপরাধীর মনোবল। তাই দিন যত গড়াতে থাকে পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের আন্তরিকতা তত বাড়তে থাকে। সেইসাথে তৈরী হয় পুলিশ জনতার মাঝে এক অপার সেতু বন্ধন। যাতে করে উজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হয় পুলিশের ভাবমুর্তি।
কাজী ওয়াজেদ আলীদের মত ভাল মানুষ এই ধরণীতে কালেভদ্রে খুব কম জন্মায়। কালজয়ী এমন মানুষদের সঙ্গে পরিচয়ের পর সখ্য গড়ে ওঠেনি এমন মানুষ খোঁজে পাওয়া ভার।
দেশের প্রথম সারির বাংলা ও ইংরেজী জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় তার দেশপ্রম, সৃজনশীল কর্মকান্ড, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় তার অবিচল দ্বায়িত্ববোধ, দ্বায়বদ্ধতার সাথে একনিষ্ঠভাবে কর্তব্য পালন এবং স্বচ্ছ জবাব দিহিতা, উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের প্রতি তার শ্রদ্ধাবোধ, অধিনস্থদের প্রতি আন্তরিকতা, যে কোন পরিস্থিতিতে সঠিক দিকনির্দেশনাসহ তাৎক্ষণিক যথোপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ, সাধারণ মানুষের সাথে তার বন্ধু বৎসল আচরণ, সহকর্মী এবং কর্মক্ষেত্রে তার দক্ষ ও যোগ্য নেতৃত্বগুণের কথা উঠে আসছে প্রতিনিয়ত।
এই মহাবীর মহান মানুষটি পুলিশ সম্পর্কে মানুষের নেতিবাচক ধারণা পাল্টে দিয়ে একটি ইতিবাচক বার্তা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন। ইতিমধ্যে তিনি সমগ্র বাংলাদেশের সময়ের সেরা দেশশ্রেষ্ঠ ওসির খেতাবে ভূষিত হয়েছেন।
সর্বোপরি তিনি একজন আপাদমস্তক ভাল মানুষ। পুলিশ বাহিণীর যোগ্য ও দক্ষ আর্দশবান চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা।
যা আজ তাকে নিয়ে গেছে এক অনন্য উচ্চতায়।
অসাধারণ ব্যাক্তিত্বের অধিকারী সদাবিনয়ী, স্পষ্টভাষী, সদালাপী, সাদাসিদে, নিরঅহংকার, কর্তব্যপরায়ণ, দ্বায়িত্বশীল, পরোপকারী, অসীম ধৈর্যশীল, ধর্মপরায়ণ সাদামনের এই মহান মানুষটি অসহায়,গরীর-দুঃখী ও সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ক্রমেই তিনি হয়ে উঠেছেন জনতার আস্থা ও ভরসার প্রতীক। সাধারণ মানুষ আজ তাকে জনতার সবেদন নীলমণি সময়ের সেরা ওসি হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।
এমনকি পুলিশ বাহিণীর উর্ধ্বতন ও অধঃস্তন সকলের কাছে তিনি সমান জনপ্রিয়।
উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট তিনি এক আস্থার প্রতীক এবং বিশ্বাসের অপর নাম।
এই চৌকস পুলিশ কর্তাব্যক্তিটির কথা বলতে গিয়ে তার অধীনে কাজ করা ওসি (ইন্সপেক্টর অব পুলিশ) সমমানের অনেক কর্মকর্তা বলেছেন তাদের স্বল্প সময়ের চাকুরি জীবনে পাওয়া শ্রেষ্ঠ ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী স্যার।
এস.আই.পদমর্যাদার অনেক অধঃস্তন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজী ওয়াজেদ আলী স্যারের অসাধারণ নেতৃত্বগুণ তাদেরকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। যা তাদের সবাইকে আগামীর পথ চলতে সাহায্য করবে। এমন অসাধারণ একজন ভাল মানুষের সাথে কাজ করতে পেরে তারা নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করেন। সেইসাথে তারা জানান ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী মহোদয় বাংলাদেশ পুলিশ বাহিণীর গর্ব এবং তাদের অহংকার।
সাধারণ জনতা মনে করেন ওসি মহোদয়ের সুদৃঢ় পদক্ষেপের কারণেই তার কর্মস্থল এলাকার সাধারণ জনগণ রাতের আধাঁরেও নিরাপদে পথ চলাচল করতে পারেন। তার নাম শুনেই ভয়ে অনেক অপরাধী খোলনলচে পাল্টে ভাল মানুষ হওয়ার চেষ্টা করে। অভিযুক্ত কত অপরাধী তার আপোষহীন কঠোর আইনেরর হাত থেকে বাঁচতে এলাকা ছেড়ে হয়ে যায় নিরুদ্দেশ। তাইতো গড়ে উঠতে শুরু করে সমাজের সুন্দর পরিবেশ।
সাধারণ মানুষ তাদের মতামত তুলে ধরে বলেন নিঃসন্দেহে কাজী ওয়াজেদ আলী স্যার সময়ের সেরা দেশশ্রেষ্ঠ ওসি।
পুলিশ বাহিণীর গর্বিত বীরসেনানী দেশমাতৃকার সেবায় নিয়োজিত সত্যিকারের সফল দেশ নায়কের #শুভজন্মদিন# উপলক্ষে আমার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা,

অভিনন্দন
লেখকঃ শিক্ষক ও কলামিস্ট
শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102