May 19, 2024, 5:03 pm
শিরোনামঃ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা বিচার ব্যবস্তার সুচনার ইতিহাস জানিনা, বিতর্কের শেষ কোথায় ? বুঝতে পারছি না বঙ্গ কণ্যার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলার মাটি কে বুকে ধারন, ইতিহাসের অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি পাঠাগারের কমিটি গঠন জহির সভাপতি ও লিটন সাধারণ সম্পাদক গাজায় নিজেদের গোলার আঘাতে পাঁচ ইসরায়েলি সেনা নিহত তালের শাঁস খেলে যেসব উপকার হয় ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ওবায়দুল কাদের বিশ্বাস পুনর্নির্মাণের জন্য আমি বাংলাদেশ সফর করছি: ডোনাল্ড লু ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই গুলিস্তান-মিরপুরের কাপড় পাকিস্তানের বলে বিক্রি করেন তনি!

ছাত্রীকে অপহরণ করায় মূলহোতা গাফফার,সহ তার ২ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Monday, March 7, 2022
  • 157 Time View

মোহাম্মদ ইরফান

এসএসসিতে খুব ভাল রেজাল্ট করায় নাগালের বাইরে চলে যেতে পারে শঙ্কায় ঝিনাইদহের কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়।

এ ঘটনায় মূলহোতা গাফফারসহ তার ২ সহযোগীকে গ্রেফতার এবং অপহৃত ভূক্তভোগীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

সোমবার (৭ মার্চ) দুপুরে কাওরান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে  লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

এরআগে এদিন (৭ মার্চ) ভোরে মানিকগঞ্জ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন  আবু জার গিফারী গাফফার (৩৫),সাব্বির হোসেন (২২) ও হাফিজুর রহমান (৪৬)।

এসময় তাদের কাছ  থেকে ১ কৌটা এসিড সদৃশ্য বস্তু ,৩টি দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও মোবাইল ফোন জব্দ করা হয় বলে তিনি জানান।

মঈন বলেন,ঝিনাইদহে একটি কলেজের একাদশ শ্রেণীর মেধাবী শিক্ষার্থী অপহরণের শিকার হন। গত ৫ মার্চ বিকেলে ভিকটিম ও তার এক সহপাঠী প্রাইভেট শেষে রিক্সাযোগে বাসায় ফিরছিলেন। এসময় গ্রেফতারকৃত গাফফার গং ঝিনাইদহ থানার শৈলকূপার একটি রাস্তা হতে ওই শিক্ষার্থীকে মাইক্রোবাস যোগে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

এরপর ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

তিনি আরও বলপন, ঘটনাটি দেশব্যাপী জনরোষের তৈরী হলে মেধাবী ছাত্রীর পাশে দাঁড়ায় তার সহপাঠীরা। গতকাল ঝিনাইদহ শহরব্যাপী সারাদিন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ করে অবস্থান করে। ঘটনায় তার সহপাঠীদের আহাজারি ও পিতার আর্তনাদ দেশবাসীকে আবেগ আপ্লুত করে।

যারফলে র‌্যাব ওই ঘটনার ছায়া তদন্ত শুরু করে ও জড়িতদের গ্রেফতারের ব্যপারে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ৭ মার্চ ভোরে র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা, র‌্যাব-৪ ও র‌্যাব-৬ এর যৌথ অভিযানে মানিকগঞ্জ সদর এলাকা হতে  অপহরণ মামলার প্রধান আসামীসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত বর্ণিত অপহরণের সাথে তার সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে তথ্য প্রদান করে বলেও তিনি জানান।

মঈন আরও বলেন, গাফফার অপহরণ সম্পর্কে জানায়, ভিকটিম একজন অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী। সাম্প্রতিক সময়ে ভিকটিম এসএসসিতে খুব ভালো ফলাফল করায় গ্রেফতারকৃত গাফফার ধারণা করে যে ভিকটিম তার নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে। মূলত এই কারণেই সে ভিকটিমকে অপহরণের পরিকল্পনা করে।

ঘটনার দুই দিন পূর্বে ঝিনাইদহ কোর্ট সংলগ্ন এলাকায় গ্রেফতারকৃত গাফফার তার সমমনাদের নিয়ে অপহরণের চূড়ান্ত পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা মোতাবেক গ্রেফতারকৃত ভিকটিমকে প্রাইভেট পড়া থেকে বাসায় যাওয়ার পথে রাস্তা হতে অপহরণ করে।

অপহরণ পরবর্তী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দেওয়ার জন্য সে ভিকটিমকে প্রথমে রাজবাড়ীতে তার এক নিকট আত্মীয়ের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে তার দুইজন সহযোগীকে পরিবর্তন করে নতুন দুজন সহযোগীসহ ভিকটিমকে ঢাকায় নিয়ে আসে। সেখানে আশ্রয় না পেয়ে তৎক্ষণাত মাইক্রোবাস যোগে ভিকটিমকে সিলেটে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পুনরায় ভিকটিমকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা করে। পথিমধ্যে গ্রেফতারকৃত গাফফার ভিকটিমকে এসিড এবং দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যাতে ভিকটিম কোন প্রকার চিৎকার বা আওয়াজ না করে। অতঃপর মানিকগঞ্জ হতে ভিকটিমকে উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেফতার করা হয়।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102