May 19, 2024, 6:23 pm
শিরোনামঃ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা বিচার ব্যবস্তার সুচনার ইতিহাস জানিনা, বিতর্কের শেষ কোথায় ? বুঝতে পারছি না বঙ্গ কণ্যার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলার মাটি কে বুকে ধারন, ইতিহাসের অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি পাঠাগারের কমিটি গঠন জহির সভাপতি ও লিটন সাধারণ সম্পাদক গাজায় নিজেদের গোলার আঘাতে পাঁচ ইসরায়েলি সেনা নিহত তালের শাঁস খেলে যেসব উপকার হয় ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ওবায়দুল কাদের বিশ্বাস পুনর্নির্মাণের জন্য আমি বাংলাদেশ সফর করছি: ডোনাল্ড লু ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই গুলিস্তান-মিরপুরের কাপড় পাকিস্তানের বলে বিক্রি করেন তনি!

গনতন্ত্র ও সংবিধান রক্ষার জন্য জাতীয় ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই – এনডিপি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Tuesday, September 7, 2021
  • 351 Time View

জাতীয় ঐক্যের বাস্তবতা নিরিখে এক টেবিলে বসার আহবান জানিয়ে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি – এনডিপির চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্তজা ও মহাসচিব মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা এক যৌথ বিবৃতি প্রদান করেন ।

৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ মঙ্গলবার এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ৫০ বছর শেষ হতে যাচ্ছে। অথচ মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা ভুলে আমরা কাদাকাদা

ছোড়াছুড়িতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছি। বাংলাদেশের স্থপতি শহীদ রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সব স্বার্থন্বেষী মহলের চক্রান্তে হত্যা করা হয়েছিল।যা এদেশের কোনো দেশপ্রেমিক মানুষের কাজ ছিল না। কিছু বিপদগামী সেনাবাহিনীর কিছু কর্মকর্তার কাজ।২০০৯ সালে আমাদের দেশপ্রেমিক ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাকে ( বিডিআর) হত্যা করা হয়েছিল।অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে আমাদের পথ চলতে হবে।

দেশে যখন করোনার ভয়াবহ থাবা আমাদের আঘাত হানছে, শহীদদের রক্তের উপর দাঁড়িয়ে আমরা সংঘাত করে যাচ্ছি।
আসুন কোনো সংঘাত নয়,ঐক্যমত্তের ভিত্তিতে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে রাষ্ট্রব্যবস্থা পরিচালনা করি।

কেহ সরকার, কেহ বিরোধীদলে থাকবে এটাই গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় স্বাভাবিক। যেমন এক মায়ের পেটে সন্তানের দ্বিমত থাকতেই পারে। কিন্তু মায়ের কোনো বিরোধ থাকে না।দেশ আমাদের সবার সমান। তারা বিবৃতিতে আরো বলেন, পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচন কমিশন গঠন হয়েছিল,যা মহামান্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক মনোনয়ন ও নিয়োগ পেয়েছিলেন।তারা সংবিধানকে উপেক্ষা করে চলার চেষ্টা করছে।তা আজ আমাদের উপলব্ধি করতে হবে।গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ছিল মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম চেতনা, সেই গণতান্ত্রিক ধারা ব্যাহত হয়েছে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে। অতীতের সবকিছু থেকে শিক্ষা নিয়ে, আগামী দিনের মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সামনে রেখে রাষ্ট্র এবং সরকারের কার্যক্রম পরিচালনার আহবান জানাচ্ছি। এখানে উল্লেখ্য নির্বাচন কমিশন যে সংবিধান লংঘন করেছেন তার স্পষ্ট প্রমান আছে।যদি এগুলো বিবেচনায় না রাখি, তাহলে সমূহ বিপদের আশংকা থেকে যায়।আমাদের জাতীয় জীবনে ৩ বার বিপদগ্রস্ত হয়েছে। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগষ্ট, ১৯৮১ সালে ৩০ শে মে ও ২০০৯ সালে ২৫ শে ফেব্রুয়ারী। এই দিনগুলো ছিলো হিংস্র মানুষের সৃষ্টি আর গত ১৮ মাস যাবত চলছে করোনা মহামারী যা প্রাকৃতিক বৈশ্বরিক বির্পযয়। রাজনৈতিক দল, ব্যক্তি,সামাজিক সংগঠন পেশাজীবিসহ সবাই ঐক্য বদ্ধ হয়ে,দেশে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য একটি নিরপেক্ষ শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে সবিনয় অনুরোধ জানান।

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102