May 19, 2024, 4:53 pm
শিরোনামঃ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা বিচার ব্যবস্তার সুচনার ইতিহাস জানিনা, বিতর্কের শেষ কোথায় ? বুঝতে পারছি না বঙ্গ কণ্যার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলার মাটি কে বুকে ধারন, ইতিহাসের অংশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি পাঠাগারের কমিটি গঠন জহির সভাপতি ও লিটন সাধারণ সম্পাদক গাজায় নিজেদের গোলার আঘাতে পাঁচ ইসরায়েলি সেনা নিহত তালের শাঁস খেলে যেসব উপকার হয় ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ওবায়দুল কাদের বিশ্বাস পুনর্নির্মাণের জন্য আমি বাংলাদেশ সফর করছি: ডোনাল্ড লু ভারতবর্ষে হিন্দু মুসলমানের রাজনীতি হয়,মহাত্মা গান্ধী সকল ধর্মের রাজনীতি নাই গুলিস্তান-মিরপুরের কাপড় পাকিস্তানের বলে বিক্রি করেন তনি!

একদিন পৃথিবী ভেঙ্গে চুরে চুরমার হয়ে যাবে: মাওলানা সাইফুল ইসলাম সালেহী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : Monday, April 18, 2022
  • 245 Time View

লেখক- মাওলানা সাইফুল ইসলাম সালেহী: পাহাড় পর্বত নদী সাগর ও গাছ পালা দিয়ে সাজানো সুন্দর এই পৃথিবী একদিন বিধ্বস্ত হয়ে যাবে। বাড়ি ঘর দালান কোটা কিছুই থাকবে না, একটি শহরও থাকবে না, একটি দেশও থাকবে না। এই পৃথিবীর মানুষ চিরকাল থাকার জন্য অনেক কিছু তৈরী করে রাজ প্রসাদ ও অভিজাত হোটেল সহ বহু কিছু, অথচ এইসব কিছু একদিন ধ্বংস হয়ে যাবে। পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে এই বিষয় আল্লাহ তায়ালা বলেন; করাঘাতকারী, কীসে করাঘাতকারী? আপনি জানেন কি? করাঘাতকারী কি? ( সূরা আল কারিয়াহ, আয়াত ১-৩) সেদিন হঠাৎ বিকট আওয়াজ আসবে এবং মানুষ আতঙ্ক হয়ে যাবে। মানুষ ভয়ে পালাতে থাকবে ও চারদিকে ছুটাছুটি করতে থাকবে। মানুষ এই সব দৃশ্য দেখে বেহুশ হয়ে যাবে। সমস্ত পাহাড়সমূহ ও সারা পৃথিবী ভেঙ্গে চুরে টুকরা টুকরা হয়ে পশমের উড়তে থাকবে। আল্লাহ বলেন: সেদিন মানুষ বিক্ষপ্ত পোকার ন্যায় হবে। পাহাড়সমূহ ধুনিত পশমের ন্যায় হবে। ( সূরা আল কারিয়াহ, আয়াত-৪,৫) হঠাৎ করে ভূমিকম্প এসে সারা পৃথিবী কাঁপতে শুরু করবে এবং সাথে সাথে পাহাড় পর্বত নদী সাগর বিধ্বস্ত হয়ে যাবে। তখন পৃথিবীতে কিছুই থাকবে না, পৃথিবীর ভিতরে যা কিছু আছে পৃথিবী সব কিছু বের করে দিবে, খনিজ সম্পদ সোনা হিরা মুক্তা। কোটি কোটি বছর ধরে পৃথিবীর ভিতরে যত মৃত মানুষ শায়িত আছে সেদিন পৃথিবী তা বের করে দিবে। সেদিন মানুষ চিৎকার দিয়ে বলবে আজ কী হলো, কাফির মুশরিক ও অবিশ্বাসীরা আতঙ্ক হয়ে পালাতে থাকবে। কিন্তু পালাবে কোথায়? পালানোর কোন জায়গা থাকবে না। আল্লাহ বলেন: পৃথিবী যখন তার কম্পনে প্রকম্পিত হবে প্রবলভাবে স্বীয় প্রকম্পনে । আর যখন পৃথিবী তার ভারসমূহ বের করে দিবে, আর মানুষ বলবে এর কি হলো। সেদিন পৃথিবী তার বৃত্তান্ত বর্ণনা করবে। (সূরা আল যিলযাল, আয়াত-১,২,৩,৪) সেদিন আকাশ চন্দ্র সূর্য ও নক্ষত্ররাজি ফেটে টুকরা টুকরা সমুদ্রে মধ্যে পড়ে সারা সমুদ্রসমূহে আগুন লেগে যাবে। সেদিন সমুদ্রসমূহের তলদেশ ফেটে দীর্ণ বিদীর্ণ হয়ে যাবে। আল্লাহ বলেন: যখন আকাশ ফেটে যাবে। যখন নক্ষত্ররাজি বিক্ষিপ্তভাবে ঝরে পড়বে। আর যখন সমুদ্রকে উত্তাল করে তোলা হবে (সূরা আল ইনফিতার, আয়াত- ১,২,৩) তাঁরপরে মানুষের বিচার হবে, ভাল মন্দের হিসাব নিকাশ নেওয়া হবে, এই পৃথিবীতে মানুষ যা কিছু করেছে মানুষের কৃত কর্ম দেখা হবে। তখন মানুষের অঙ্গ পতঙ্গ সব কিছু সাক্ষী দিবে, মানুষ যদি ভাল কিছু করে তা মানুষের অঙ্গ পতঙ্গ সাক্ষী দিবে এবং মানুষ যদি খারাপ কিছু করে তা মানুষের অঙ্গ পতঙ্গ সাক্ষী দিবে। মানুষের নেকী ও বদের পাল্লা মাপা হবে। যাদের নেকীর পাল্লা ভারী হবে তারা যাবে জান্নাতে আর যাদের নেকের পাল্লা হালকা হবে তারা যাবে জাহান্নামে। আল্লাহ বলেন: সুতরাং যার নেকের পাল্লা ভারী হবে, সে জান্নাতে সুখে- স্বাচ্ছন্দ্যে থাকবে। আর যার পাল্লা হালকা হবে। তার স্থান হাবিয়া।আপনার কি জানা আছে এটা কি? হাবিয়া হলো উত্তপ্ত অগ্নি। ( সূরা আল কারিয়াহ, আয়াত-৬,৭,৮,৯,১০,১১)

শেয়ার করুন
More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102