February 8, 2023, 9:11 pm
শিরোনামঃ
ঝিনাইদহে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজের বীজ বিতরণ ব্যাপক নিয়ম খাল পাড়ের অবৈধ স্থাপনা সরাতে হুঁশিয়ারি দিল ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ২০২২ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ মেয়াদোত্তীর্ণ গাড়ি নিয়ে বিপাকে হিরো আলম জন্মদিনে শুভেচ্ছায় সিক্ত আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ বশির আহম্মেদ পর্ব ৬০: “যে ইতিহাসটি বলা দরকার” : এডভোকেট খোন্দকার সামসুল হক রেজা ভাষার মাস ফেব্রুয়ারী, বই মেলা ভাষা বিস্তারের মাধ্যম মাগুরা জেলার হাজীপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামে একটি খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গ্রামে চলছে ভাঙচুরের তান্ডব নৃত্য ঝিনাইদহের গাছ প্রেমিক অসিত বিশ্বাস। ইচ্ছা আছে ১ লক্ষ গাছ লাগানোর “ঢাকার বুকে একখন্ড মাগুরা” একটি সামাজিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ

আইনের শাসনের অভাবেই ড. আফতাব আহমেদ হত্যার বিচার আজও হয়নি : মোস্তফ

Reporter Name
  • Update Time : Saturday, September 26, 2020
  • 172 Time View

দেশের প্রখ্যাত রাষ্ট্র বিজ্ঞানী ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. আফতাব আহমেদ হত্যার ১৪ বছর হলেও তার হতাকান্ডের বিচার এখনও হয়নি এবং হত্যাকান্ডের রহস্য জাতি আজও জানতে পারেনি। যা দেশ ও জাতির জন্য অত্যান্ত লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব ও জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, জাতি ড. আফতাব আহমেদ হত্যার প্রকৃত রহস্য জানতে চায়। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায়। আইনের শাসনের অভাবের কারনেই তার হত্যার বিচার আজও হয়নি।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নয়াপল্টনে প্রখ্যাত রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. আফতাব আহমেদের ১৪তম হত্যাবর্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন আয়োজিত স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের আবাসিক কোয়ার্টারে ঢুকে অধ্যাপক আফতাব আহমাদকে হত্যার ঘটনায় কূল কিনারা করতে পারছে না পুলিশ। প্রায় দেড় দশকেও তদন্ত শেষ করতে পারেনি তারা। ফলে এর আদৌ বিচার হবে কি না, এ নিয়ে সংশয় কাটছে না। মামলার বাদী নূরজাহান আফতাব এরই মধ্যে মারা গেছেন। তার স্বজন, সহকর্মী বা বিভাগের (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) শিক্ষার্থীরাও এই মামলা নিয়ে আর সোচ্চার নন। যা হতাশাজনক।

তিনি বলেন, একজন প্রাজ্ঞ দেশপ্রেমিক শিক্ষক ছিলেন তিনি। জয় বাংলা শ্লোগানেরও অন্যতম প্রবক্তা ছিলেন আফতাব আহমেদ। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে তিনি একজন সক্রিয় মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ মুক্তিযোদ্ধাদের ‘বীরশ্রেষ্ঠ’, ‘বীরউত্তম’, ‘বীরবিক্রম’, ‘বীরপ্রতীক’ এই খেতাবগুলোর প্রস্তা তিনিই প্রথম করেন। রাজনৈতিক পথের ভিন্নতা থাকলেও একথা বলতেই হবে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় এবং দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে তিনি সাহসী ভূমিকা পালন করেছিলেন। যা থেকে আমাদের শিখার আছে অনেক কিছু।

সংগঠনের সমন্বয়ক কৃষক মো. মহসিন ভুইয়া’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক ও এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বিশিষ্ট সাংবাদিক এহসানুল হক জসীম, রাজনীতিক স্বপন কুমার সাহা, মো. কামাল ভুইয়া, শ্রমিক নেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Dairy and pen distribution

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি ডটকম
themesba-lates1749691102