বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১০:১৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
২৬ শর্তে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ থেকে সঠিক রাজনৈতিক নির্দেশনা নাই অবিভক্ত ঢাকার নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ এর মৃত্যু বার্ষিকীতে ব্যথিত হয়েছি বাসাপ এর জমকালো ৩৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ব্রাজিলের ৪০০ জার্সি বিতরণ করলেন ঝাল মুড়ি বিক্রেতা মোহাম্মদ জাবেদ বিএনপির সঙ্গে জোটের প্রশ্নই আসে না: রওশন এরশাদ মেয়র হানিফকে হারিয়ে, ঢাকা এখন রাজনৈতিক অন্ধকারে বিশ্বকাপে নতুন ইতিহাস গড়লেন মেসি সিমিন হোসেন রিমি আ.লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মনোনীত হওয়ায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন আবু সাঈদ তালুকদার রিচার্লিসনের জোড়া গোল, দাপুটে জয় ব্রাজিলের

অপরাধ সকল দেশে হয়, বিচার বাংলাদেশে শেখ হাসিনার সরকারই করছে, আমার মনে হয়!

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ১২২ দেখা হয়েছে

খাস খবর বাংলাদেশ ডেস্কঃ অপরাধ অপরাধীর পরিচয় কেনো রাজনৈতিক হয়? কেনো আমরা অপরাধীকে অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করতে পারছিনা? ধর্ষন নিয়ে ভারত সহ বিশ্বের অনেক দেশ বিব্রত। বিব্রত আমরাও নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর নারী নির্যাতনে ঘটনা বাংলাদেশের সকল ইতিহাসকে ম্লান করে দিয়েছে। একজন পুরুষের পরিচয়কে কলংকৃত করেছে। আলোচনায় হচ্ছে সিলেটের এমসি কলেজে ছাত্রলীগ, সোনাইমুড়ী যুবলীগ, চট্রোগ্রামের ক্রস ফায়ারে পুলিশ ইত্যাদি।

ব্যাক্তির পরিচয় ঘোপন করে সঃস্থার পরিচয় সামনে আনতে আমরা উৎসাহিত কেনো? রাজনীতি ও সঃস্থাকে দায়ী করে আমরা কি সমাধান আশা করছি? রাজনীতির মত পবিত্র, মানব ও রাষ্ট্র সেবার মাধ্যকে প্রশ্নবোদক চিহ্ন একে দিয়ে বিচার আমরা কোথায়, কার কাছে আশা করবো।

এ যাবতকালের অপরাধের মাত্রা অতিরিক্ত অস্বীকার করছি না, প্রশ্ন হলো, কোন অপরাধ অপরাধীকে রাজনৈতিক পরিচয়ে হ্মমা করা হয়েছে? শেখ হাসিনার সরকারতো আর যোগীনাত সরকার নয়। বাংলার মানুষের আশা আকাংখার প্রতিক। আমরা বিতর্কের জন্য বিতর্ক করছি। ধর্ষন নিয়ে রাজনীতি করছি। অপরাধীকে ইচ্ছেকৃত রাজনৈতিক পরিচয় দিচ্ছি। তবে এ কথা সত্যা হ্মমতার ছায়া ছাড়া বিহৎ অপরাধী গড়ে উঠে না। এ কথাও সত্য হ্মমতার ছায়া ভোগীরা হ্মমতা ছাড়া থাকতেও পারেনা।

এসএ খালেকের ভাষায় বলতে হয়, আমার কি অপরাধ। আমিতো সব সময় সরকারি দল করি। সরকার বদলায়, আমি বদলাই না। এবার এসএ খালেকের ভ্যাগে সরকারের দলে ঠাই হয় নাই। এসএ খালেকের অপরাধের তালিকা কমে এসেছে। যারা এই সরকারি দলের তালিকা দীর্ঘ করার জন্য এই অপরাধীদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছেন, তাদের অপরাধের বিচার শুরু করতে হবে।

সোনাইমুড়ীর দেলোয়ার যুবদল থেকে আমদানি করা যুবলীগ। এ কথা আর কতদিন শুনতে হবে। কতদিন শুনতে হবে বিগত সরকারের সময় অপরাধীর বিচার হয় নাই। শেখ হাসিনার সরকারতো আর বিগত সরকার নয়। এ দেশের মানুষ বিগত সরকারের উপর বিশ্বাস ও আস্থা নাই বলেই, তাদের অবস্থান আস্তাকুঁড়ে। মধ্য রাতে আদালত বসে নাবালক শিশুদের অধিকার রহ্মায় একমাত্র বাংলাদেশই করতে পারে।

ইতিহাস এখানেই থেমে থাকবে না, বাঙালী আরো কত শত ইতিহাস জন্ম দিতে পারে। অপরাধ আছে বলেই অপরাধীর সৃষ্টি হচ্ছে। আমাদের রাজনীতিই নির্মূল করার দায়ীত্ব নিয়েছে।

আমি মনে করি এবং বিশ্বাস করি অপরাধীদের কে রাজনৈতিক পরিচয় না দিয়ে অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করলে। অপরাধ নিয়ে রাজনীতি না করলে, সরকার ও বিচার ব্যবস্থাকে সহায়তা করলে, অপরাধ নির্মুল করতে চাইলে, অপরাধীকে নিয়ে রাজনীতি করবেন না। রাজনীতি করার অনেক বিষয় আছে। রাজনীতির মাধ্যমে অপরাধীকে উৎসাহিত, বিচার ব্যবস্থার উপর আক্রমন, পুলিশের উপর ডিল ছুড়ে কী প্রমান করতে চান সুশীল সমাজের নাম দ্বারীরা। কী প্রমান করতে চান ছাত্র সমাজের ভাই এরা।

শেখ হাসিনার উপর আস্তা রাখুন, একজন অপরাধীও পারপাবেনা। বাংলাদেশ, ভারত না। ধর্ষকের বিচার হবে না, বাবরী মসজিদ ভাঙ্গা অংশ বিচারপতি চোখে দেখবেন না।

লেখকঃ বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব ও রাজধানী মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামলী লীগের সভাপতি জনাব রবিউল আলম।

শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর...

Dairy and pen distribution

themesba-lates1749691102